শনিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২২, ০৭:২২ অপরাহ্ন

লংগদু উপজেলা চেয়ারম্যান বারেক জুতা দিয়ে পেটালেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদককে

নিজস্ব সংবাদদাতা( গিরি সংবাদ)
  • প্রকাশের সময় মঙ্গলবার, ৮ নভেম্বর, ২০২২
  • ৭ বার পড়া হয়েছে

রাঙামাটির লংগদুতে উপজেলা পরিষদ চেয়রম্যান আব্দুল বারেক সরকার কর্তৃক মাইনীমূখ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকে জুতা দিয়ে পেটানো ও হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
সোমবার বেলা ১টার দিকে এর প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা করেছে দলটি। উপজেলার আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয় হতে মিছিলটি বের করা হয়। মিছিল শেষে দলীয় কার্যালয়ে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
সাভায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মানিত উপদেষ্টা সুভাস চন্দ্র দাশ, সহ-সভাপতি ও সাবেক মাইনীমূখ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল আলী ও আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হুসেন আলী, জেলা পরিষদের সদস্য আসমা আক্তারসহ উপজেলা ইউনিয়নের ভিবিন্নস্তরের নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।
সভায় বক্তরা বলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান তার লাঠিয়াল বাহিনী মাধ্যমে উপজেলায় ত্রাসের রাজত্ব সৃষ্টি করছে। দিন দিন সাধারণ মানুষের উপর নির্যাতন করে যাচ্ছেন। লাঠিয়াল বাহিনীর ভয়ে কেউ তার প্রতিবাদ করতে চায় না। উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল বারেক সরকার কর্তৃক ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. বেল্লাল এর উপর হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবি জানানো হয়। এই ঘটনায় লংগদু উপজেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে এই ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়।
মাইনীমূখ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. বেল্লাল হোসেন জানান, হাজাছড়া একজন কর্মী আমাকে জিজ্ঞাস করে তাকে কেন কমিটিকে রাখা হয়নি। তখন আমি তাকে জানিয়েছিলাম উপজেলা চেয়ারম্যান আমাকে নিষেধ করে। এই কথাটি ওনি আবার চেয়ারম্যানকে জানায়। আজ সকালে চেয়ারম্যান আমাকে কোন কথাবর্তা না শুনেই আমাকে হাত দিয়ে কিলঘুশি মারে পরে তার পায়ের জুতা দিয়ে মারতে থাকে। পরে আশেপাশের লোকজন আমাকে রক্ষা করে।
উল্লেখ্য, গত ৭ ফেব্রুয়ারি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে গিয়ে বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়া এবং তাদেও পক্ষে অবস্থান নেয়ায় গত বিপক্ষে অবস্থান নেয়ায় দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে দল থেকে ৮জনকে অব্যাহত দেয়া হয়। আব্দুল বারেক সরকার উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি থাকা কালীন দল থেকে অব্যাহতি দেয়া

এই বিভাগের আরো সংবাদ